এই লেখাটি 784 বার পড়া হয়েছে

দৃশ্য ১১-শেষ

অক্ত ঃ-সাজন্যা।

জাগা ঃ- জম্বুদ্বীবর নিবুলী ঝার।

 

(বেলান রাঙা চিক গোরি দেঘা যেব’। অথবা ক্রমে বেল’ সদক্কান ধাগা যেব’। গেন্ধেল উদ্যা অণার সমারে সমারে সাঝন্যা আন্দারত বেরেই বেরেই পাগল্যা বট গাঝর শিঙরানী ধুলি পয্যা ধুলি পয্যা দেঘা যেব’। পাগল্যা গাচ্ছোনুর শিঙরানী দেঘী রতনদাঘী ঘরা পিধিত্তুন লামি আমক অভাক)

 

পঞ্চরতন ঃ- উহ! (বিলাপ কানানীর ধেগে ধেগ দিঘোল গোরি) আমার কি আহ্ল অল’। কয় মাস অল’। ঝারে জঙ্গলে ঘুর পাক খের! বঝর বিদি যেদ’ কাঝার এজ’ কুল লাঘত পেবার আঝা নেই। হিমালয়র মোনমুরো লামিলং নৈরঞ্জনা নদী পার ওই বরগাঙ পারত এলং, আর’ সিন্ধু নদী পার ওই ফাঝালাবাদর বামেয়ান ঝার ফুরি জম্বুদ্বীবর নিবুলী ঝারত পলঙ্গী। আমার ব্যাঘ ফুরেই যাল্লোই, তেঙা পয়য্যা খানা খরাগি, কাবর চুবোর। কি অভ’। ঘরত ফিরিবং কিঙিরি।

বায়ুরতন  ঃ- (আম্বুর কারী কারী এ্যাই) পঞ্চরতন দা, ও পঞ্চরতন দা, মুই নেই আর ম’ ঘরাবো আহ্ধি ন’ পারের। মরি যেবগোই। মুই নেই নেই।

অগ্নীরতন             ঃ- (রমচক্র ওই) কি ভেই চিদে ন’ গোরিস, উক্ক ঘরা মরি

যোক, আর’ চেরবো থেবাক কি ওইয়্যা।

বেলরতন             ঃ- ভেই লক, বেয়ার গরানা মর ইয়দ থুম। মুই ঘরত ফিরি

যেম্বে।

পঞ্চরতন             ঃ- কিঙিরি ফিরি যেবে! এই নিবুলি ঝারত্তুন-দ’ এজ’

নিঘিলিও – ন’ পারিয়।

বেলরতন             ঃ- ব্যাঘ ফুরেই যাল্লোই।

পঞ্চরতন             ঃ- সিয়েন-দ’ বানা তর নয়, বেক্কুনর এক গুদি।

মানেকরতন          ঃ- ভূঝিরে ভিলে চিত্ পুরেত্তে।

পঞ্চরতন             ঃ- চিত কি আমাত্তুনও নেই না? যার যা আঘে, সিয়েনী ভাগ

যুগ গোরি খেই ঘুমত পোরিয়।

মানেকরতন          ঃ -এ পাগল্যা গাঝ’ সেরে ঘুম যেদং? ইত্তুন এক্কা জাগা

লোল্যা কি অয়!

পঞ্চরতন             ঃ- রেদি বিলি মায় কুধু আর যেবং।

রতনদাগী ঃ- কি আর গোরিব। খেই খায় ঘুমত পোরিবঙগে সালেন।

 

(এবার যার ভূদিত্তুন তে-খানা নিঘিলেই ভাগ-যুগ গোরি খেবাক। চুমোউনত্তুন পানি তেবেই তেবেই পানি খেবাক। খানা থুম ওই যার ধগে তে ঘুমত পরিবেক। বেক্কুনে ঘুমত পরি নিবুলী ঝার ইনজীব ওই গেল’। আন্ধারান আর’ ঘুর আন্ধার ওই উধিল’। হাক্কন পর বিদঘূদে বিদঘুদে সার পেবাক। র’ থামেইনে—)

র’ এক                ঃ- (ধেগ দিঘোল গোরি) – ও বেলরতন লাঙ্যা দা–দা-।

ওলাঙা-দাদা কুধু তুই। বেল-রতন দা–দা–দা।

বেলরতন             ঃ- (কাবর উজ্যাত্তুন ভূসুদ গোরি উধি)- উ–উ– সিবে কন্না

ডাগের! ম’ ম’ বুড়ি দাগেত্তেই। (খুঝী ওই হাক্কে ইন্দি হাক্কে

উন্দি দুদদুরদে দুদদুররে)

বেলরতন ঃ- আমি ইক্কু ইধু, ন’ এইয। ন’ এইয। আমি ওই নিবুলি ঝারত পোরি আঘিয়।

(বেলরতনে পুখ কনাদি থদর’ ওই থেব’)

র-দুই     ঃ- ও অগ্নীরতন দাদাও——–দাদা—অগ্নীরতন——–

(অগ্নীরতনেও বেলরতন সান্যা র-বো শুনি খুঝী ওই)

অগ্নীরতন ঃ- উই–উই, ম’ বুড়ি, মরে হঝা এযের। কিচ্ছু ন’ দেঘঙর।  চেরাক্কোলোই আয় আয়— মুই বাচ্ছেই আঘং।

(অগ্নীরতনে পজিম কনাদি থদর’ ওই থেব’)

র’ তিন   ঃ- ও বায়ু- দা- দা–ও! চিজিবো কানের কানের? তরে দাগি দাগি কানের, কমলে এ—বে–ই।

( র’ শুনানার সমারে বায়ুরতনেও ছন্দ ভন্দ ওই ইন্দি উন্দি ভিল ভিলেদে ভিল ভিলেদে)

বায়ুরতন  ঃ- চিজিবোরে এক্কা গমে রাঘা, গমে রাঘা, নিবুলী ঝারত্তুন, নিঘিলি পাল্যা অভ’। কুন্দি তুই—-।

(কধায়ান কনার সমারে সমারে উত্তর কনাদি থদর’ ওই   থব’গোই)

র’ চের    ঃ- ও মানেক রতন দা-দা, দাদারে—ই—ই। আমার তেঙা পয়য্যা, ব্যাঘ ফুরেয়ন। কমলে এভে! চিজিবো স্কুলত যেবার অক্ত অহ্র, ঝাদি আয় ঝাদি আয়।

মানেক রতন         ঃ- উহ্ ! বুক্কত কন্না লাদি মাল্য। চিজি-মা, এক্কা ধয্য ধর। আমি তেঙা পয়য্যা সনা – রূব’ হিরে মানেক গোধেল গোধেল আনিবং। চিজি- মা —মা–মা—মা।

(পাগল মধি সন্ন ধগ ওই দঘিন কনাদি থদর’ ওই থেব’)

র’-পাঁচ   ঃ- (পদ্মকুমর-মা) পদ্মকুমর’ বাপ ! ধর্ম- ন’ আহ্রেজ। মন দর’ ওই থাক। জ্ঞান সাধনা গর’। ত সমাজ্যা বেয়ারীউনরে বুঝ’। ঘুম নেযা, খুব মদিসন্ন ওইয়ন।

(পঞ্চরতনে কাবর মু- উঝ্যাত্তুন উধি তা মানুষ্যুন ইন্দি উন্দি রেনী চাইদ্যা চের কনাদি চেরজন পদ’ হেত্যা চেই থির গোরি আঘন। তারারে বেক্কুনরে জন গধে গধে সে জাগাত্তুন আনি আর’ অহ্ধে অহ্ধে থই)

পঞ্চরতন ঃ- ভেই লক, ঘুম-য’। পোত্যা আমল পরেল্লি। বেল উধিলে আমি এ্যাই জম্মুদ্বীপ সারি বারানসী নগরত ফিরি যেবঙগই।

(লাইট লারে লারে চিমেই যেবগোই আর ইন্দি পঞ্চরতন দাঘীও আর’ ঘুমত পোরিবেক)

 

দৃশ্য-১২

 

অক্ত ঃ -বেন্যা মাধান।

জাগা ঃ- বারানসী নগরর বেয়ারউনর আদাম।

 

(বোধিসত্ত্ব শিষ্য মন্ডলি পাঁচ জন্দই বেন্যা পিন্ডচরনত লাম্মে, গেন্ধেল উদ্যা অনার সমারে সমারে ভাঝী উধিব’ উক্ক গম্ভীর গোরি লারে লারে মং বাজনীর র’। র’বো জুরো অনার সমারে শুন’ যেব’)

 

প্রার্থনা     ঃ- বুদ্ধং শরনং গচ্ছামি

ধর্ম্ম শরনং গচ্ছামি

সংঘং শরনং গচ্ছামি।

(বোধিসত্ব দাগিরে পঞ্চরতনদাঘী মোক্কুনে পিন্ডচরন দে-দন। বোধিসত্ত্ব তা শিষ্যমন্ডলিউন যেই ফুরেই অপর প্রান্তদি পঞ্চরতনদাঘি মোক্কুনও সুর আহ্ধি যেবাক্কই। তারপর বুদ্ধ প্রার্থনা র’বো ভাঝি উধিব’)

দৃশ্য-১৩

 

অক্তঃ দিন দিবুস্যা মাধান।

জাগাঃ- অচিন রেজ্যর নিবুলী ঝার।

 

(পঞ্চরতনে আক্কল আক্কল এ্যাই খুব অহ্রান ওই উক্ক বটগাজ’ শিঙরী তলে এ্যাই বঝি হাক্কন জিরেনার পর বোইদ্যাত্তুন উধি হাক্কন ইন্দি উন্দি চেই)

 

পঞ্চরতন ঃ- বা! পরান জুরেল’। ও কি সুখ ফিবির ফিবির বোয়ের বাঝের। চেরো হেত্যা মোন মুরো টারেং কামাহ্ মাধা। (গাচ্ছোরে গমে ফিরে পাগেই চেই) – এম্ভা ঝবুর বট গাজ। ম’ জীবনত এই পত্তম। কয়েকশত বঝর অভ’ পারা পাং। (ইন্দি হাক্কন চেই)-ও ভেই লক’ কোদ্দুরত আঘ’? এয’ এয’ দোল বটগাজ উক্ক সুগ পেয়ং!

 

(ক্রমে এবার বেক্কুনরে চাগলক উহ্রণ-পিরন ফাদা চিরে অবস্থায় দেঘা যেব’। এবার তা-পরে তে লুমিবেক্কি। হাক্কন জিরেনার পর এক্কা তাজা ওই পেদ পরা অনুভব গোরিবেক)

 

বেলরতন ঃ- পঞ্চ দা পেদ পুরের! ব্যাঘ-দ’ ফুরেয়্যা কি খেবং।

পঞ্চরতন ঃ- কী গত্তং। আমার কর্মত আঘে।

অগ্নীরতন ঃ- যেই ভেই, বরগাঙত।

পঞ্চরতন ঃ- উহ্ ! এই নিবুলীত্তুন ফদাংতাঙত নিঘিলি ন’ পারর আর’ বরগাঙত! আহ্রা আহ্রি অহ্লে—।

বায়ুরতন  ঃ- (বৈদ্যাত্তুন উধি ইন্দি উন্দি চেই চেই কধা কব’) আমন’ দেঝত এত্থমান মেলাক ভূই, মুরো- মাদি থেই কী বেয়ার গরা এযে। সুগে থাক্কে ভূদে কিলায়। সিয়েনী যুদি চাষ-বাস গোরিদং, দেচ্ছান সনা বানেই পাত্তং। গরীব দুখ্যা যারা আঘন তারাও থাগয়্যা অহ্ধাক।

মানেকরতন          ঃ- (মানেকরতনে তা জাগাত্তুন ভুসুদ গোরি উধি) – ও ভেইলক, চ-গীদে, চ-গীদে, বটগাচ্ছো পাদানিত্তুন পানিফুদো পরেত্তে। এধা –এধা — চেদাঘি)

( বেক্কুনে তাজ্জব ওই খুঝীয়ে চেবাক্কি)

রতনদাঘী ঃ- অয়দ্যা- এ্যাহ্না! (এবার বেক্কুনে ফিরে পাগেই চেবাক)

পঞ্চরতন ঃ- কি আমক কধা, দিন দিবুস্যা মায়! রেদ-জারকাল অহ্লে সিয়েন এক্কান কধা।

বায়ুরতন  ঃ- অয়-দে। ইয়ে-দ’ এক্কুয়ারে দিন দিবুস্যা।

বেলরতন ঃ- এক কাম গোল্যা কি অয়?

রতনদাঘী ঃ- কী- কী—কী গরানা!

বেলরতন ঃ- গাচ্ছোর -দ’ ঝবুর ধেলা আঘন! চেরকুনেত্তুন উক্ক ধেলা কাবি চেই-না, অহ্লে পানি নিঘিলি পারে।

পঞ্চরতন ঃ- নিশ্চয় কোন এক্কান হেতু আঘে, মক্ত কিত্তে পাদা বেই পানি পরিব’। ধেলা কাবিলে মনে অয় গাচ্ছোর তি ওই পারে।

অগ্নীরতনঃ-           আরে এম্ভা ঝবুর গাছ, উক্ক ধেলা কাবিলে কি অহ্ধ কিচ্ছু ন’ অভ’। বেলরতন ভেই, মরে এক্কান তাগল -দে পুগেদি ধেলাব’ এক্কা কাবি চাং।

(বেলরতনে অগ্নীরতনরে এক্কান তাগল দিব’। অগ্নীরতনে গাচ্ছোত উধি পুগ’ ধেলাব’ কাবি দে-দে, দে-দেই পানি উহ্র উরেই পোরিব’)

বেলরতন ঃ- উহ্। পানি—পানি—পানি! ও ভেই অগ্নী লাম্মি লাম্মি ন’ লাগিব’ আর। (অগ্নী গাচ্ছোত্তুন লামিনে বেক্কুনে এক সমারে আহ্ধ পাদিনে পানি খেবাক)

অগ্নীরতন ঃ- উহ্ ! কি সুওত, কি সুওত।

বেলরতন ঃ- পানি কমলে এত্তমান মিধে -ও–ও!

বায়ুরতন  ঃ- গাদ’ গাদ’ কেইয়্যার কাজর বিজোর ব্যাঘ ধোই ফেল’।

মানেকরতন          ঃ- উহ্ , পানিয়েন খেইনে জানে বল ভোজ্যে।

পঞ্চরতন ঃ- গাচ্ছোরে -দ’ চিত পুরে পারা অল’। তেহ্ পানিয়েন-দ’ পরি যেবগোই।

বেলরতন ঃ- তর এক চিদে। এমেনে গারে গায় আর’ ভরিব’।

অগ্নীরতন ঃ- উহ্! সুখ, ও ভেই লক!

(আদেক্যা গোরি আর’ এক্কান আবিস্কারর জগার পারি)

দগিন ধাগেদি ধেলাবো কাবিলে কি অয়!

বেলরতন ঃ- অয় অয়, অহ্লে সিত্তুন অন্য এক্কান নিঘিলি পারে।

পঞ্চরতন ঃ- থোক থোক, সেয়ান্যা -ন’ গোস্য আর। পেট ভরে সং পানি খেলা, গাদিলে, কাবর চুবোর ধোইনে সাংসাঙ্য অহ্লা, আর কি? ন’ গোস্য আর।

বেলরতন ঃ- তাগল’আন মরে দে ভেই, এবার মুই কাবঙগোই।

পঞ্চরতন ঃ- আ—হা—। বেলরতন——

(বেলরতন কন’ কধা-ন’ শুনি গাচ্ছোত উধি ধুম ধুম দগিন ধাক্যা ধেলা গোস্যেই দেনার সমারে সমারে কলাপাদাত ভুদি ভুদি এ্যাহরা, পায়েস, পিধে, নানা বাবত্যা খাদ্যদ্রব্য ফলাহার পরিযেব’। সিয়েনী দেঘী বেক্কুন উচ্ছোই রেং কারিবেক)

অগ্নীরতন ঃ- খেই-ল’। তাঝি খেই- ল’। বেয়ার আর দরকার নেই। উক্ক গাঝত্তুনই বেক্কানি পেই যের।

বায়ুরতন  ঃ- ধর পঞ্চ দা। ভাগ্যত আঘে যক্কে পেবার, ইজো খেবঙগে।

(এবার বেক্কুনে ভাগ-যুগ গোরি থাজি খেবাক। খানার পরে আহ্লেম্ব ওই ঘুম যেবার যুক্কলেবাক)

পঞ্চরতন ঃ- হাক্কন জিরেই -ল’। বেল থাগদে’, এবার মেলাখ জাগাত লুমি পারিবোঙগোই। গাচ্ছ্যরে আর কিচ্ছু ন’ গোস্য।

(বেক্কুনে হাক্কন ইনঝিব ওই যেবাক। হাক্কন পর বেল’রতন্দই অগ্নীরতন্দই কায়কুই ওইনে চুবে চুবে কধা কবাক)

বেলরতন             ঃ- আচ্ছা, গাচ্ছোর-দ’ আর দ্বি-কুনেদি ধেলা আঘন! নিশ্চয়

সিগুনতও কন’ এক্কান থেই পারে।

অগ্নীরতন             ঃ- মত্তুনও মনে অহ্র থেই পারে।

 

বেলরতন             ঃ- অয়- অয়। চের জন জুগবদিলে পঞ্চরতন ভেইবো কিচ্ছু

কোই ন’ পারিব’। চুবে চুবে জাগেই চা।

 

(এবার অগ্নী জাগেব’ বায়ুরে আর বেলরতনে জাগেব’ মানেকরতনরে। তারারে ঘুমত্তুন জাগেইনে ইজিরে’দি কবাক দগিন ধাক্যা ধেলাবো কাবিবের। তারা পরামর্শত এতেরাও খুঝী ওই অয় লবয় পুরেবাক। চেরোজনে জধা ওই মানেক রতনরে গাঝত তুলি দিনে পজিম ধাক্যা ধেলা কাবি দেনার সমারে সমারে আষ্ট্যজন গাভুর গাভুর মিলে (পরী) নিঘিলি এবাক। সমারে সমারে ধুল’ র’ বাজি উধিব’। সে ধুল’ র’ সমারে চের কনত্যা চেরবো মিলে (পরী) ভাগ অলাখ। শুরু অভ’ চের জনর আনন্দ নৃত্য। অবশিষ্ট চেরজন পঞ্চরতনরে ঘিরি নৃত্য তালত থেবাক। নৃত্যর তালে তালে মিলেউনে মরত্তুনরে বাজ’ চুমত্তুন মদ খাবেই মাত্তল গোরি গোরি থবাক।)

 

পঞ্চরতন             ঃ- (রাগ দেঘেই) উহ্ ! তমারে কোয়েঙগে নয়, গাচ্ছ্যরে আর

কিচ্ছু ন’ গোরিবের!

 

(বেয়ারী চের জন নাজদে নাজদে অহ্রান ওই ধুলি পরিবেক আর কিয়্যে ওগোলানিত থেবাক। চের বেয়ারীরে ঘুম নেযেই ফুরেই সে মিলেউনে আর’ পঞ্চরতন’ সুওত এচ্যা মিলেউন’ সমারে তালে তালে যোগ দিবেক্কি। এ্যান অক্তত দেবা আন্ধার ওই চুগুনো পেরাক গোরিব। এ্যা ইক্কু বরবোয়ের এযেত্তে সান গোরি মিলেউনে শিলেং ভূত্যাং গোরি যেবাক্কই। পঞ্চরতন তা জাগাত্তুন থিয়েইনে রাগে হাক্কে একুন হাক্কে ওকুন ঘুরিনেও রাগ থামেই ন’ পারের। এ্যান অক্তত রঙ্গলাল পঞ্চরতনরে মধ্যে রাগেই আর ঢুল হাক্কন বাচ্ছেনার পর)

 

পত্থম রঙ্গলাল        ঃ-        গীত

অবুজ মানেই বানা তোগেই

ঘরত মোকপুওর

খেবার চেলে কিচ্ছু নেই।

রঙ্গ তামাজা পেলে তারা

নেতার কধা পুরি ফেলেই খান্দই তারা।

পঞ্চরতন ঃ- উহ্ ! ভান্তে মুই তরে শরণ গরঙর মরে তুই উদ্ধর গর। ম’ মানুষ্যুনর মন মিথ্যা দৃষ্টিয়ে ভরি যেইয়্যা।

 

দ্বিতীয় রঙ্গলাল       ঃ-        গীত

 

দিক কাবুল’ ন’ অভে তুই

দেব’ কুলত যেবে গোই

পূন্য কর্ম জমেই আঘে

দেব’ কুলত যেবে তুই

গাড়ি ঘোড়া উরি এযের

দিক কাবুল’ ন’ অভে তুই।

 

( গিত্তো গেই ফুরেই যানার সমারে সমারে ঢুলর ঢাল প্রচন্ড বেগে শুরু ওই সব শেষ ঢুলর ঢালত দেবাবো আর’ অহ্ধে অহ্ধে গোরি রঙ্গলাল দাঘি অদৃশ্য ওই যেবাক্কোই, তারপর বাগী চেরজন বেয়ারী ঘুমত্তুন জাগী উধিবেক।)

 

বায়ুরতন              ঃ- পঞ্চ দা, ভালুকদিন পর ঘরত ঘুম গেলুং পারা পেলুং।

পঞ্চ – দা-তুই ঘুম-ন’ যাস?

পঞ্চরতন             ঃ- বায়ুরতন, তমারে আর কি কোম। মরে তুমি নেতা বানেয়্য

ম’ কধা-ন’ ধোরিনে—-

মানেকরতন          ঃ- পঞ্চ দা, হাক্কন ঘুম গেলুঙগে সুওত, কী-ম বুড়ি এচ্যা

পারা পেয়্যংগে কন দেখ্যস নি?

পঞ্চরতন             ঃ- মানেক, কি কোম তমারে—-

বেলরতন             ঃ- (ফুসুদ গোরি ঘুমত্তুন উধি) ও ভেইলক, এ গাচ্ছোর আর

উক্ক ধেলা আঘে, যেই সিবেও কাবি দিয়েই।

পঞ্চরতন             ঃ- (রাগ দেঘেই) বেলরতন, আর নয়! বহুত ওইয়ে বারা

বারি আর নয়।

অগ্নীরতন             ঃ- (তা জাগাত্তুন ভূসুদ গোরি উধি) হ্যা—-হ্যা—-হ্যা,

পঞ্চরতন ত’ কধানি শুনিনে মত্তুন আহ্ঝি এযের। চিমেই

চিমেই, পিদেই পিদেই মরি যত্তে মানুষ্য তাজা ওই উত্যস্

কাত্যায়, উভ্ আঘে! (নিজরে দেঘেই)-ই-এই মানুষ্যত্যাই।

পঞ্চরতন             ঃ- অগ্নীরতন, মুই ইধু কয্যা গোরিবেত্যয়- ন’ এযং। খবর

পাজ তর-কবালত দুগর আহ্রি থুবত্তে?

অগ্নীরতন             ঃ- আহ্রি কামানে, ডিঙিরেত জমেলেও ন’ দরাঙ আর। এয’

ভেইলক, ইক্কু বানা উক্ক ঢেলা আঘে, সিবেও কাবি চেই। উক্ক

বট গাছ কাবিলে কি অভ’ আর আহ্ঝার আহ্ঝার বটগাছ

আঘন।  (এবার বেক্কুনে বায়ুরতনরে কাবা বাঝে দিবেক)

বায়ুরতন              ঃ- মুই কাবি-ন’ পারিম। মুই দরাঙর। গাচ্ছ্যর সত্য আঘে।

গাচ্ছ্য নানু আঘে।

রতনদাঘী ঃ- এধুক্কুন ঢেলা কাবিলঙগে আমার কিচ্ছু ন’ অয়।

আ-তুই জুধো গোরি এক্কান কজ্।

(তাগলান বলে ধরি বায়ুরতনরে গোঝেই দিবেক)

পঞ্চরতন             ঃ- বায়ুরতন ! (জোগার পারি)

বায়ুরতন              ঃ- মর গোরিবের কিচ্ছু নেই, পঞ্চ দা!

(বায়ুরতনে গাচ্ছোরে এক সালাম দিনে কাবা ধোরি ঢেলাবো

ফেলেই দি ঝরত ঝরত মনিমুক্ত হিরে জহরত গোদা

গাছতলা ওই থেব’)

রতনদাঘী ঃ- ( পাগল’ সান ওই) হ্যা —হ্যা—হা!

বেলরতন             ঃ- বেয়ার আর গরা পত্ত নয়। সনা সনা সনা।

অগ্নীরতন             ঃ- মনি–মুক্ত—মনি —মুক্ত–মুক্ত।

মানেকরতন          ঃ- হিরা —-হিরা—- জহরত জহরত।

বায়ুরতন              ঃ- সনা , রূব, মনি– মুক্ত — হিরা –জহরত। হা–হা—হা।

(পঞ্চরতনে অপমানে দুগে রাগে এক কনাদি গির-গিরেই আঘে। এতেরা আর চেরোজনে এগত্তর ওই ফন্দি তুলিলেক) গাচ্ছোরে গরা শুদ্ধ উভোদ পুন্দরি গোরিবের। বেক্কুনে এক জধা ওই পাগল’ সান আহ্ঝি দিবেক। চেরজনে চেরান হুরোল, তাগল, হোন্দা, ফাগারা লোই গাচ্ছো গরা কুরো ধল্যেক। পঞ্চরতন, কেয়্যাত যেদ্দুর শক্তি আঘে সেদ্দুর বল প্রয়োগ গোরি হিজেক দিনে চেরজনরে থামেবার চেল’)

পঞ্চরতন        ঃ- উহ্ —-। তমারে মানা গোজ্যঙ, তারপরেও গাচ্ছো শেষ

গোল্যা। আর’ তুমি উগুরেবার চেষ্টা গরর। না– পাত্তা নয়!

(তারার কুব ফেলাদে পঞ্চরতনে মানা গত্ত যেইনে ধস্তা -ধস্তি-

দন্ধ বাঝি যায়, এক সময় পঞ্চরতনে তারা লগে –ন’ জিনি এক

জাগাত  ছিতকেই পরি)

– উহ্ , কি অগমান— কি–অগমান।

(পঞ্চরতনে ছিততেই পরানা সমারে দুরত্তুন গাচ্ছ্যরে উধিজ

গোরি আহ্ধ জুর গোরি থিয়েই থেব’। সমারে সমারে বাজি

উধিব’ ভাব গম্ভীর গোরি তিন খেব মং বাচ্ছেনীর র’। তারপর

ফাং অভ’ প্রার্থনা)

 

প্রার্থনা

 

বুদ্ধং শরনং গচ্ছামি

ধর্ম্ম শরনং গচ্ছামি

সংঘং শরনং গচ্ছামি।

 

(প্রার্থনা থুম অনার সমারে সমারে রতনদাঘী গাচ্ছ্যত কুব ফেলেবাক। তারপর সমারে সমারে নিঘিলি এবাক তীর ধনু নানা বাবদর আথ্যার আহ্ধত গোরি স্বয় সাগর বৃরাজর সৈন্য বাহিনী)

বৃরাজা     ঃ (নেপথ্যে)-নিঘিলি এয’ সৈন্য, সামন্ত, ইত্তো, কুদুম্মো, আদাম্যা, পারাল্যা, সগললক, পিত্তিমিত্তুন বিদেয় গোরি দুও এ শয়তান মানুষ্যনরে। পিত্তিমিত থেবার তারার কন অধিকার নেই।

(ফাং অভ’ রনত্রে নিমিঝত ইনজীব ওই যেব’ তারপর আঘাজ পহ্ন ওই দেঘা যেব’ পঞ্চরতন বাদে ব্যাঘ শিলেক ভিলেক মরা। এবার ভাজি উধিব’ মরা ঢুলর -র’। এ ঢুল-র’ হাক্কন বাজানার পর)

এই মরাউন ইয়দ থাগোদোক পজু-পক্কী শিয়েল-কুগুর খানা ওই। এবার ধর্মবীর কর্মবীর সত্যবীর পঞ্চরতনরে পাঁচ ছয়ান গাড়ি ধনরতœ পুরেই দিনে বারানসী কুলত বারেই দি এযগোই। তার মোক পুও রেজ্য মানেই লক তারে বাচ্ছেই আঘন।

 

সব্বে সত্ত্বা সুখীতা হোন্তু

জগতের সকল প্রানী সুখী হোক

সাধু—-সাধু—সাধু।

 

(এবার খুঝীর রঙ্গতাল বাঝি উধিব’। ভালক্কন সং ঢুল বাজানার পর ঢুল মহ্ ওই যেই অভিনেতা অভিনেত্রী যাবতীয় কলাকুশলী দর্শক্কুনরে আহ্ধ জুর গোরি বিনম্র চিত্তে শ্রদ্ধা জানেই গেন্ধেল চিমেই যেব’।)

Print Friendly, PDF & Email

এই বিভাগের আরো লেখা পড়তে নিচের দেওয়া শিরোনাম এ ক্লিক করুন

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*
*