এই লেখাটি 863 বার পড়া হয়েছে

ল্যাঙ্যাদাদা নাগর চান (রসিক বন্ধু নাগর চান)

ল্যাঙ্যাদাদা নাগর চান (রসিক বন্ধু নাগর চান)

নাগর চান
কোচপানা চুগুনো ওই
মানষ্যর ইধ্ ; পাত্তরত ঘজা খেই
আগুন’ কিত্যায় ; ঝেঁত ঝেঁত জ্বলি উধের ?
দাঙা যার কেয়্যা চামে চামে
রুমহ্ত যুদি সোমেই যায় ফুদ আঙারা
ইত্থথেন কয়দিন পুরিব’
মুজঙ্যা অক্তয়ান ঘুল এই ধুমুলুক খায়

নাগর চান
এ মাধান কয়দিন কাদিব’
বিষ্যান তাদি উধের এ্যাদ ভেঁদ কিচ্ছুই নেই
কোচ পানা বান কিওই-দ নেই ছিদিয়্যা
ইন্দি যেব’ উন্দি যেব’ লাঙেল বেব’ পওি ধুরে ধুরে
বন খেই মুরগুজ্জে বেদাগি বনর মোঘোই কাঙারা
লাত্তি লাত্তি চুগুনো কারকাস্যা কুলুগ পানিয়ে

নাগর চান
ইত্থেন ঘোজি চেই মাধা তুল উজন্যা
রিপরিপ আগাজত লুঘিমার কোপানা
বিলেই যোক মানেই জনমত কোচপানা আহ্ধায়
কাদা বিষ ভোদা ওই নুও কোর গেজি যোক।
নাগর চান
দুলুগ’ ভাঝত নয় তুই মুই ফেলেই দিই
অক্তয়ান হোরেই যেইয়্যা সং সং ফিবেগীর
কগরায় পৈইয়ুন মুলে সুম ওই যেব
বোরই বন পেরাবন কিচ্ছু নয় রণে রণ সংমিল

নাগর চান
আহ্রমাজা আন্যায় যুদি খায় বান
উত্যত্ দিএ্যা বেতবনা বুরেই দিই চারিতলাত
ভীর ভীর  বান পরোক হিলেহিলি সংসার
বাজী উধোক ধুধগ হেংগ্রং বাঝি র’
শিঙে রয় জুর দাবানা জুর মুরিহ্ কুধুম ওই
নাদাত ফেলেই এচ্যা এচ্যা এক’ এচ্যা কেল্যা দুই
কেল্যা পরশু তিন এযান ওই ধুঝিত ধুজো যোক।

নাগর চান
কিরব্যা দাদা নাগর চান
লাঙ্যা দাদা নাগর চান
মেয়্যা দাদা নাগর চান
লী দাদা  নাগর চান
ফিবেগী দাদা নাগর চান,
কি কজ বানত বান
ভিরে যোক আর’ বান।
নাগর চান

১৫.০৩.২০১০খ্রিঃ

 

বাংলা

রসিক বন্ধু নাগর চান
ভালোবাসার কাঙাল হয়ে
মানুষের হৃদয় পাথরের ঘর্ষনে
আগুন কেন; প্রজ্জলিত হয়ে ওঠে?
দাঙ্গাঁয় পুড়ে যাচ্ছে শরীর আবরণ
অন্তরে যদি সিদ্ধ হয়ে থাকে আগুনের ফুলকি
হৃদয় কত আর পুড়তে থাকবে
সামনে ঘুর অন্ধকার নেমে আসছে।

রসিক বন্ধু নাগর চান
এভাবে আর কতদিন চলবে
বিষক্রিয়া বেড়ে ওঠছে হুদিস নেই
কেও নেই ভালোবাসার বন্যা ছড়াবে
চুষে বেড়াবে প্রতি পাহাড়ে উপত্যাকয়
বাঁধার মুখে মুখ থুবরে যায় বেতবনের মঘোই
টুকরো টুকরো চুকিয়ে যাওয়া ঘোলা কাঁকড়া জলে।

রসিক বন্ধু নাগর চান
হৃদয় উজাড় করো এগিয়ে যাও অগ্রে
সীমাহীন আকাশে ছুরে মার ভালোবাসা
ছড়িয়ে পরুক মানব হৃদয়ে ভালোবাসার ঝুড়ি হাতে
নিভে যাক বিষাক্ত দাত গজে উঠুক নতুনরূপে
রসিক বন্ধু নাগর চান
রনাঙ্গন নয় ফেলে দিই সব
সময় গড়িয়েছে অন্ধকারের  লালন
নষ্ট হয়ে যাবে গ্রহণের পালা
অন্ধকার দুদিন কিছুই নয় মতের মিলনে।

রসিক বন্ধু নাগর চান
হৃপিন্ডের দম নাইবা যদি থাকে
বন্ধন খুলে দিও আলোড়-মুখে
বাতাস বইতে থাকুক গিরি দ্বারে
বেজে ওঠুক ধুধুক হেংগ্রং বঁশি
শিঙার শব্দে বন্ধন হোক প্রান
আশা বেড়ে ওঠুক আজ নয় কাল
কাল অথবা অন্য একদিন কালো মেঘ কেঠে যাক।

রসিক বন্ধু নাগর চান
প্রেমিক বন্ধু নাগর চান
প্রনয়ী বন্ধু নাগর চান
মায়া বন্ধু নাগর চান
শান্ত বন্ধু নাগর চান
রাগী বন্ধু নাগর চান
বন্ধন শ্রীহোক আবারও
শক্তি বৃদ্ধি হোক আবারও
রসিক বন্ধু  নাগর চান

Print Friendly, PDF & Email

এই বিভাগের আরো লেখা পড়তে নিচের দেওয়া শিরোনাম এ ক্লিক করুন

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*
*